লুব-রেফের আইপিও অনুমোদন

25

বুক বিল্ডিং পদ্ধতির প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে শেয়ার ইস্যু করে পুঁজিবাজার থেকে মূলধন উত্তোলনের অনুমোদন পেয়েছে লুব-রেফ বাংলাদেশ লিমিটেড।

আজ বুধবার পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ৭৪৯ তম কমিশন সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

কমিশন সভা শেষে বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক (চলতি দায়িত্ব) ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, লুব-রেফের ১৫০ কোটি টাকার মূলধন উত্তোলনের জন্য বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে ৪ কোটি ৫২ লাখ ৮৩ হাজার ১৪টি সাধারণ শেয়ার আইপিওর মাধ্যমে ইস্যুর জন্য কোম্পানিটির প্রসপেক্টাস প্রকাশ করার প্রস্তাব অনুমোদন করেছে কমিশন। যেসব যোগ্য বিনিয়োগকারী (ইআই) ৫০ টাকার উপরে বিডিং করেছে সেসব ইআইদেরকে কমিশনের নির্দেশনা অনুসারে বিডিং করা হয়েছে কিনা সে বিষয়ে ব্যাখ্যা তলব করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএসইসি।

এর আগে লুব-রেফের শেয়ারের প্রান্তসীমা নির্ধারণে এ বছরের ১২ অক্টোবর বিকাল ৫টায় শুরু হয়ে টানা ৭২ ঘন্টার বিডিং শেষ হয় ১৫ অক্টোবর বিকাল ৫টায়। বিডিংয়ে কোম্পানিটির শেয়ারের প্রান্ত-সীমা মূল্য (কাট-অফ প্রাইস) ৩০ টাকায় নির্ধারণ করেছেন ইআইরা। পাবলিক ইস্যু রুলস অনুসারে, সাধারণ বিনিয়োগকারীরা প্রান্ত-সীমা মূল্যের চেয়ে ১০ শতাংশ কমে অর্থাত্ ২৭ টাকায় কোম্পানিটি শেয়ার পাবেন।

এ বছরের ২০ আগস্ট নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসির কমিশন সভায় লুব-রেফকে বিডিংয়ের অনুমোদন দেয়া হয়। আইপিওর মাধ্যমে কোম্পানিটি পুঁজিবাজার থেকে ১৫০ কোটি টাকার মূলধন উত্তোলন করে ব্যবসা সম্প্রসারণ, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ ও আইপিওর খরচ খাতে ব্যয় করবে। ৩০ জুন সমাপ্ত ২০১৯ হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক বিবরণী অনুসারে, পুনর্মূল্যায়ন সঞ্চিতিসহ কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) ৩১ টাকা ৯৩ পয়সা আর পুনর্মূল্যায়ন সঞ্চিতি ছাড়া এনএভিপিএস ২৫ টাকা ৯৬ পয়সা। আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২ টাকা ৮ পয়সা। গত ৫ বছরের আর্থিক বিবরণী অনুযায়ী কোম্পানিটির কর পরবর্তী নিট মুনাফার ভারিত গড় হারে ইপিএস ২ টাকা ২৩ পয়সা।

উল্লেখ্য, আইপিওতে আসার জন্য যোগ্য বিনিয়োগকারীদের কাছে কোম্পানির আর্থিক ও ব্যবসায়িক দিক তুলে ধরতে ২০০৭ সালের ৫ ডিসেম্বর রোড শোর আয়োজন করেছিল লুব-রেফ। কোম্পানিটির মূল্য ব্যবসা লুব্রিক্যান্ট উত্পাদন ও বিপণন। তাদের বাজারজাতকৃত লুব্রিক্যান্ট ব্র্যান্ড বিএনও। কোম্পানিটি বিদেশেও লুব্রিক্যান্টস রফতানি করে থাকে। কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপক এনআরবি ইকুইটি ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড আর রেজিস্ট্রার টু দি ইস্যু বেটাওয়ান ইনভেস্টমেন্টস লিমিটেড।