বিধি অনুসারে আইপিও পর্যবেক্ষণে ব্যত্যয় হলে ডিএসইর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে বিএসইসি

10

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জকে ( ডিএসই) প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে কোম্পানির তালিকাভুক্তির ক্ষেত্রে পাবলিক ইস্যু রুলস অনুসারে আইন ও বিধিবিধান লঙ্ঘন হয় না, এমন ধরনের পর্যবেক্ষণ দেয়া থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। এ নির্দেশনার ব্যত্যয় হলে এক্সচেঞ্জটির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছে বিএসইসি।

শেয়ারবাজারে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের মাধ্যমে (আইপিও) কোম্পানির তালিকাভুক্তির ক্ষেত্রে স্টক এক্সচেঞ্জের পক্ষ থেকে সংশ্লিষ্ট কোম্পানির বিষয়ে বিএসইসির কাছে সুপারিশ পাঠানোর নিয়ম ছিল। তবে গত বছর এটি পরিবর্তন করে সুপারিশের পরিবর্তে পর্যবেক্ষণ দেয়ার নিয়ম করা হয়। তাছাড়া এক্ষেত্রে পাবলিক ইস্যু রুলসের কোনো বিধিবিধান লঙ্ঘন হয়েছে কিনা, শুধু সে বিষয়ে পর্যবেক্ষণ দেয়ার কথা বলা হয়েছে। কিন্তু ডিএসইর পক্ষ থেকে বিধির বাইরে গিয়ে আইপিও পর্যবেক্ষণ পাঠানোর বিষয়টি কমিশনের দৃষ্টিগোচর হয়েছে।

এ পরিপ্রেক্ষিতে চলতি মাসের ৬ তারিখে বিএসইসির কর্মকর্তাদের সঙ্গে ডিএসইর কর্মকর্তাদের একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বিএসইসির পক্ষে সংস্থাটির নির্বাহী পরিচালক রুকসানা চৌধুরী, পরিচালক মনসুর রহমান, উপপরিচালক মো. কাওসার আলী, মো. ফারুক হোসেন ও মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন এবং সহকারী পরিচালক সৈয়দ মুহাম্মদ গোলাম মাওলা উপস্থিত ছিলেন।

অন্যদিকে ডিএসইর পক্ষে এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী ছানাউল হক, সিওও সাইফুর রহমান মজুমদার, সিএফও আবদুল মতিন পাটোয়ারি এবং ভারপ্রাপ্ত সিআরও মো. আব্দুল লতিফ উপস্থিত ছিলেন। সভায় আলোচনার ভিত্তিতে পাবলিক ইস্যু রুলস অনুসারে আইপিওর ওপর পর্যবেক্ষণ দেয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এ বিষয়ে ডিএসইর পক্ষ থেকে কমিশনকে আশ্বস্ত করা হয়।

ডিএসইর পাশাপাশি চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) ক্ষেত্রেও এ নির্দেশনা প্রযোজ্য হবে। গতকাল বিএসইসির পক্ষ থেকে ডিএসইর সঙ্গে অনুষ্ঠিত সভার কার্যবিবরণী অনুমোদন করে এ বিষয়ে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বলা হয়েছে।