সিআইবি ডাটাবেজে প্রবেশাধিকার চেয়ে বিএসইসি’র আবেদন, বাংলাদেশ ব্যাংকের নাকচ

13

বন্ড মার্কেটের উন্নয়ন এবং দীর্ঘমেয়াদি অর্থায়নের ব্যবস্থাকরণের লক্ষ্যে বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে ক্রেডিট ইনফরমেশন ব্যুরো (সিআইবি) ডাটাবেজ ব্যবহারের প্রবেশাধিকার চেয়েছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। এছাড়া যেসকল বিনিয়োগকারী বন্ড, ডিবেঞ্চার এবং ডেবট ইন্সট্রুমেন্টের সঙ্গে জড়িত তাদের তালিকাও চেয়ে শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা। কিন্তু বিএসইসির এই আবেদন নাকচ করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। বাংলাদেশ ব্যাংক সিআইবি ডাটাবেজ ব্যবহার ও বন্ড, ডিবেঞ্চার এবং ডেবট ইন্সট্রুমেন্টের সঙ্গে সম্পৃক্ত বিনিয়োগকারীদের তালিকা প্রদান করতে পারবে না বিএসইসিকে জানিয়ে দিয়েছে। বিবি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা যায়, বাংলাদেশ ব্যাংক তাদের সিআইবি ডাটাবেজ ব্যবহার এবং বন্ড ইনভেস্টরদের তথ্য একমাত্র পার্লামেন্ট ছাড়া আর কাউকেই দিতে পারে না। তবে সময় সময়ে বন্ড ইস্যুয়ারদের ক্রেডিট রেকর্ডের তথ্য বিএসইসিকে প্রদান করতে পারে। এছাড়া কমিশনের নিজের ডাটাবেজ নিজে তৈরি করার পরামর্শ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

উল্লেখ্য, যেসব বন্ড বা ডিবেঞ্চার ইস্যুয়ার বিনিয়োগকারীদের ঋণ পরিশোধে ব্যর্থ হয়েছে তারা নির্ভরযোগ্য তথ্যের অভাবে পুনরায় ঋণ নেওয়ার সুযোগ নিচ্ছে। যেহেতু দীর্ঘমেয়াদে ঋণ নেওয়ার ফলে খেলাপী হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয় তাই এক্ষেত্রে সরকার চাইছে দেশের পুঁজিবাজারে বন্ড মার্কেটের উন্নয়নের মাধ্যমে করপোরেট বন্ড ছেড়ে ইস্যুয়ারদের দীর্ঘমেয়াদে ঋণ নেওয়ার সুযোগ সৃষ্টি করা। সেই ধারাবাহিকতায় বন্ড মার্কেটের উন্নয়ন করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে সিআইবি ডাটাবেজ ব্যবহারের অনুমতি চেয়েছিল বিএসইসি। কিন্তু এ সংক্রান্ত তথ্য দেওয়ায় নিষেধাজ্ঞা থাকায় বিএসইসির আবেদন প্রত্যাখ্যান করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।